নীড়পাতা সমকালীন সংবাদ আন্তর্জাতিক অর্থনীতিতে নোবেল পেলেন বাঙালিসহ ৩ জন

অর্থনীতিতে নোবেল পেলেন বাঙালিসহ ৩ জন

10
0

সম্ভাবনা ডেস্ক:

বৈশ্বিক দারিদ্র্য লাঘবে অবদান রাখায় এ বছর অর্থনীতিতে নোবেল পুরস্কার পেয়েছেন এক বাঙালিসহ তিন অর্থনীতিবিদ।

সোমবার স্টকহোমে দ্য রয়্যাল সুইডিশ একাডেমি অব সায়েন্সেস এ পুরস্কার ঘোষণা করে।

এবারে নোবেল বিজয়ী তিন অর্থনীতিবিদ হলেন- অভিজিৎ ব্যানার্জি, এস্তার দুফলো ও মাইকেল ক্রেমার।

নোবেল কমিটির এক বিবৃতিতে জানানো হয়, বৈশ্বিক দারিদ্র্য লাঘবে গবেষণার জন্য অভিজিৎ ব্যানার্জি, এস্তার দুফলো ও মাইকেল ক্রেমারকে অর্থনীতিতে নোবেল পুরস্কার দেওয়া হয়েছে।

৫৮ বছর বয়সী ভারতীয় বংশোদ্ভূত অভিজিৎ বর্তমানে যুক্তরাষ্ট্রের নাগরিক। রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর, অমর্ত্য সেন ও ড. মুহম্মদ ইউনুসের পর চতুর্থ বাঙালি হিসেবে নোবেল পুরস্কার পেয়েছেন অভিজিৎ। আর অর্থনীতিতে নোবেলজয়ী দ্বিতীয় বাঙালি তিনি।

এর আগে অর্থনীতিতে নোবেল পুরস্কারপ্রাপ্ত প্রথম বাঙালি হলেন ভারতীয় অর্থনীতিবিদ অমর্ত্য সেন। দুর্ভিক্ষ, মানব উন্নয়ন তত্ত্ব, জনকল্যাণ অর্থনীতি ও গণদারিদ্রের অন্তর্নিহিত কার্যকারণ বিষয়ে গবেষণা এবং উদারনৈতিক রাজনীতিতে অবদান রাখার জন্য ১৯৯৮ সালে তিনি অর্থনীতিতে নোবেল পুরস্কার পান।

নোবেল পুরস্কারের অফিশিয়াল পেইজে জানানো হয়েছে, অভিজিতের জন্ম ভারতের মহারাষ্ট্রের মুম্বাইতে। তবে কলকাতার বিভিন্ন গণমাধ্যম জানিয়েছে, অভিজিতের জন্ম পশ্চিমবঙ্গের কলকাতায়।

অভিজিৎ হার্ভার্ড বিশ্ববিদ্যালয় থেকে পিএইচডি করেছেন। অধ্যাপনা করছেন যুক্তরাষ্ট্রের ম্যাসাচুসেটস ইনস্টিটিউট অব টেকনোলজিতে।

অভিজিতের সঙ্গেই নোবেল পেয়েছেন তার স্ত্রী মার্কিন অর্থনীতিবিদ এস্তার দুফলো। তিনি ফরাসি বংশোদ্ভূত। দ্বিতীয় নারী অর্থনীতিবিদ হিসেবে অর্থনীতিতে নোবেল পেলেন তিনি। সর্বকনিষ্ঠ অর্থনীতিবিদ হিসেবেও অর্থনীতিতে নোবেল পাওয়ার কৃতিত্বও দেখালেন দুফলো।

এমআইটি থেকে পিএইচডি নিয়ে দুফলো তার স্বামীর সঙ্গে একই ইনস্টিটিউটে অধ্যাপনা করছেন।

এদিকে ৫৫ বছরের মাইকেল ক্রেমার হার্ভার্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক। ওই বিশ্ববিদ্যালয় থেকেই পিএইচডি ডিগ্রি নেন তিনি।

এর আগে এবছর চিকিৎসা বিজ্ঞানে নোবেল পেয়েছেন যুক্তরাষ্ট্রের বিজ্ঞানী উইলিয়াম কায়েলিন ও গ্রেগ সেমেনজা এবং যুক্তরাজ্যের পিটার র‌্যাটক্লিফ।

পদার্থে এ বছর নোবেলজয়ীরা হলেন– কানাডিয়ান-আমেরিকান বিজ্ঞানী জেমস পিবলস এবং সুইস বিজ্ঞানী মিচেল মেয়র ও দিদিয়ের কুইলজ।

রসায়নে নোবেল পেয়েছেন– যুক্তরাষ্ট্রের জন গুডেনাফ, যুক্তরাজ্যের স্ট্যানলি হুইটিংহাম ও জাপানের আকিরা ইয়োশিনো।

গত বছর সাহিত্যে নোবেল পুরস্কার প্রদান স্থগিত থাকায় গত বছরেরটিসহ এ বছর সাহিত্যে দুটি নোবেল পুরস্কার দেওয়া হয়। পোলিশ লেখক ওলগা তোকারচজুক ২০১৮ সালের জন্য এবং পোলিশ লেখক পিটার হান্দকে এ বছর সাহিত্যে নোবেল পুরস্কার পান।

শান্তিতে নোবেল পেয়েছেন ইথিওপিয়ার প্রধানমন্ত্রী আবি আহমেদ আলি। ২০১৮ সালের এপ্রিলে ইথিওপিয়ার প্রধানমন্ত্রীর দায়িত্ব গ্রহণ করা ৪৩ বছর বয়সী আবি আহমেদ শান্তি ও আন্তর্জাতিক সহযোগিতা অর্জনে প্রচেষ্টার জন্য এ বছর শান্তিতে নোবেল পুরস্কার পেয়েছেন।

সূত্রঃ সমকাল।

রিপ্লাই করুন

অনুগ্রহ করে আপনার মন্তব্য লিখুন
অনুগ্রহ করে আপনার নাম লিখুন