নীড়পাতা সমকালীন সংবাদ বাংলাদেশ জাতীয় সংসদে বহরগ্রাম-শিকপুর সেতু নির্মাণের দাবি সাংসদ নাহিদের

জাতীয় সংসদে বহরগ্রাম-শিকপুর সেতু নির্মাণের দাবি সাংসদ নাহিদের

4
0

সম্ভাবনা ডেস্ক:

হবে হচ্ছে কিংবা সম্ভাব্যতা যাচাই- এসবের মধ্যে আটকে আছে কুশিয়ারা নদীর বহরগ্রাম-শিকপুর সেতু নির্মাণ। ২০১১ সালের গোলাপগঞ্জ উপজেলার বুধবারীবাজার ইউনিয়নের এক বিশাল জনসভায় সেতু নির্মাণে ঘোষণা দিয়েছিলেন সাবেক স্থানীয় সরকার মন্ত্রী প্রয়াত সৈয়দ আশরাফুল ইসলাম। এর মধ্যে ৮ বছর পেরিয়ে গেলেও সেতু নির্মাণে দৃশ্যমান কোন অগ্রগতির খোজ পাচ্ছেন না নদীর দুই পাড়ের মানুষ। অবশেষে বুধবার (১১ সেপ্টেম্বর) মহান জাতীয় সংসদের অধিবেশনে কুশিয়ারা নদীর ওপর বহরগ্রাম-শিকপুরে সেতু নির্মাণের পুরাতন দাবি নতুন করে উত্থাপন করেন সাবেক শিক্ষামন্ত্রী ও সিলেট-০৬ আসনের সংসদ সদস্য নরুল ইসলাম নাহিদ।

জাতীয় সংসদে প্রয়াত মন্ত্রীর প্রতিশ্রুতির রক্ষায় স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়ের দায়িত্বশীল মন্ত্রীর দৃষ্টি আকর্ষণ করে সাবেক শিক্ষামন্ত্রী নাহিদ তার বক্তব্যে বলেন, পুর্ব সিলেটের একটি গুরুত্বপুর্ণ সড়ক হচ্ছে বিয়ানীবাজার-বহরগ্রাম-গোলাপগঞ্জ সড়ক। স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়ের অধীনে ইতোমধ্যে এ সড়কের দুই পাশের রাস্তা সংস্কার করা হয়েছে। তিনি বলেন, বড়লেখা, বিয়ানীবাজার ও গোলাপগঞ্জ উপজেলাসহ কয়েক লক্ষাধিক মানুষের চলাচলে ব্যবহৃত এ সড়কের কুশিয়ারা নদীতে বহরগ্রাম-শিকপুর ফেরি চলাচল চালু থাকলে বর্তমানে তা বন্ধ রয়েছে।

তিনি আরো বলেন, ২০১১ সালের ৫ ফেব্রুয়ারি গোলাপগঞ্জ উপজেলার বুধবারীবাজার ইউনিয়নে সফরকালে এক বিশাল জনসভায় সেতু নির্মাণে ঘোষণা দেন সাবেক স্থানীয় সরকার মন্ত্রী প্রয়াত সৈয়দ আশরাফুল ইসলাম। এ লোশখে পর্বর্তীতে, স্থান নির্বাচন, সম্ভাব্যতা যাচাই, মাটি পরীক্ষাসহ বিভিন্ন অগ্রগতি লক্ষ্য করা গেলেও টানা ৮ বছর পেরিয়ে গেলেও সেতু নির্মাণে দৃশ্যমান কোন উন্নয়ন হয়নি। এসময় তিনি প্রয়াত মন্ত্রীর প্রতিশ্রুতি রক্ষা এবং স্থানীয়দের দুর্ভোগ লাঘবে এ ব্রিজ নির্মানে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহনের জন্য স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রীর দৃষ্টি আকর্ষণ করেন।

গোলাপগঞ্জ উপজেলার প্রাণের দাবি কুশিয়ারা নদীর ওপর বুধবারীবাজার ইউনিয়নের বহরগ্রাম-শিকপুর ব্রিজ। নদীর এ অংশে দুই বছর পূর্বেও ফেরি চলাচল করতো। এখন ফেরি নেই- বিয়ানীবাজার, গোলাপগঞ্জ ও বড়লেখাসহ কয়েক উপজেলার মানুষ ডিঙ্গি নৌকায় ঝুঁকি নিয়ে নদী পারাপার করছেন। এমনকি রোগী পারাপারেও ভরসা এসব ডিঙ্গি নৌকা। স্থানীয়দের দাবি, দ্রুত সময়ের মধ্যে সেতু নির্মানের পরিকল্পনা গ্রহণ ও তা বাস্তবায়ন করে তারে দুর্ভোগ লাঘব করতে সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়ের সুন্দৃষ্টি কামনা করেন।

এদিকে, জাতীয় সংসদে ব্রিজ নির্মানের এই দাবিটি জোরালোভাবে উত্থাপন করায় গোলাপগঞ্জসহ বিয়ানীবাজার ও বড়লেখা উপজেলার মানুষ সাবেক শিক্ষামন্ত্রী ও সিলেট-৬ আসনের সংসদ সদস্য নুরুল ইসলাম নাহিদকে শুভেচ্ছা ও সাধুবাদ জানাচ্ছেন।

 

সূত্রঃ বিয়ানীবাজার নিউজ 24।

রিপ্লাই করুন

অনুগ্রহ করে আপনার মন্তব্য লিখুন
অনুগ্রহ করে আপনার নাম লিখুন