নীড়পাতা ফিচারড পিএইচজি হাইস্কুলের স্বর্নালী সময়ের শিক্ষক শ্রদ্ধেয় বিষ্ণুপদ আচার্য্য স্যারের প্রতি...

পিএইচজি হাইস্কুলের স্বর্নালী সময়ের শিক্ষক শ্রদ্ধেয় বিষ্ণুপদ আচার্য্য স্যারের প্রতি শ্রদ্ধাঞ্জলি – মোঃ নাজিম উদ্দিন

পিএইচজি হাইস্কুলের স্বর্নালী সময়ের শিক্ষক শ্রদ্ধেয় বিষ্ণুপদ আচার্য্য স্যারের প্রতি শ্রদ্ধাঞ্জলিঃ
••••••••••••••••••••••••••••••••••••••••
ঐতিহ্যবাহী পিএইচজি হাইস্কুলের স্বর্নালী সময়ের একজন শিক্ষক ছিলেন শ্রদ্ধেয় বিষ্ণুপদ আচার্য্য স্যার।এছাড়াও তিনি খলিল চৌধুরী আদর্শ বিদ্যা নিকেতনেও শিক্ষকতা করেছেন।বর্তমানে তিনি সিলেট এয়ারপোর্ট উচ্চ বিদ্যালয়ের সহকারী প্রধান শিক্ষকের দায়িত্বে নিয়োজিত।বেশ কিছুদিন ধরে শ্রদ্ধেয় বিষ্ণু স্যার ব্রেন টিউমারে আক্রান্ত হয়ে সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজে চিকিৎসাধীন ছিলেন।স্যারের অসুস্হতার খবর শুনার পর থেকে বি়শ্বের বিভিন্ন দেশে ছড়িয়ে থাকা পিএইচজি হাইস্কুলের স্যারের প্রিয় ছাত্ররা বিভিন্ন মাধ্যমে খোজ খবর নিতে থাকেন।সবার আশা ছিল স্যার খুব তাড়াতাড়ি সুস্হ হয়ে উঠবেন।কিন্তু আজ দুপুরে স্যার আমাদের সবাইকে ফাকি দিয়ে চলে গেলেন না ফেরার দেশে।প্রিয় স্যারের মৃত্যুতে মনটা বিষাদে ভারাক্রান্ত।স্যারের মৃত্যু সংবাদ শুনার পর স্কুল জীবনের স্মৃতিগুলো বারা বার মনের পর্দায় ভেসে উঠছে।স্যারের আদর,স্নেহ,মায়া,মমতা কখনো ভুলার নয়।স্যারের মিষ্টি হাসি আর ক্লাসে নীচু স্বরে কথা বলার ভঙ্গি এখনো চোখে ভাসছে।বেশ কিছুদিন ধরে পিএইচজি হাইস্কুলের প্রিয় শিক্ষকদের নিয়ে ধারাবাহিক স্মৃতিচারন মুলক লেখা লিখে আসছি।শ্রদ্ধেয় বিষ্ণু স্যারকেও নিয়ে একটি লেখা তৈরী করার প্রস্তুতি নিয়েছিলাম।কিন্তু লেখাটি পোষ্ট করার আগেই স্যার চিরবিদায় নিলেন।অথচ আজ প্রিয় স্যারকে নিয়ে ঠিকই লিখলাম তবে তা বেদনা দায়ক মৃত্যু সংবাদ নিয়ে।এখনো পিএইচজি হাইস্কুলের স্বর্নালী সময়ের বেশ কয়েকজন শিক্ষাগুরুকে নিয়ে লেখা বাকি রয়েছে।উনাদের নিয়ে স্মৃতিচারন মুলক লেখার কাজ এগিয়ে চলছে।কিন্তু প্রিয় বিষ্ণু স্যার সেই সুযোগটি দিলেন না চলে গেলেন বড় তাড়াতাড়ি।আমাদের সবার ভালোবাসাও স্যারকে আটকে রাখতে পারেনি।আসলে মৃত্যু বড়ই নির্মম,সে কারো জন্য অপেক্ষা করেনা।যার যখন সময় আসে তাকে তখনই মৃত্যুর কাছে হার মানতে হয়।আমাদের বিষ্ণু স্যারের প্রতি ছাত্রদের প্রচন্ড ভালোবাসা ছিল।স্যার ছাত্রদের খুব যত্ন নিয়ে পড়াতেন।স্যারের বাচন ভঙ্গিও ছিল চমৎকার।ব্যক্তি জীবনেও তিনি ছিলেন নম্রতা ও ভদ্রতার প্রতিচ্ছবি।একজন নিখাদ ভদ্রলোক বলতে যা বুঝায় বিষ্ণু স্যারও ছিলেন তেমনি একজন মানুষ।স্যারের হাতে গড়া হাজারো ছাত্র আজ বিশ্বের বিভিন্ন প্রান্তে ছড়িয়ে-ছিটিয়ে রয়েছেন।স্যারের অসুস্হতার সংবাদ পাওয়ার পর থেকে তার প্রিয় ছাত্ররা ছিলেন উদ্বিগ্ন।আমাদের প্রত্যাশা ছিল স্যার সুস্হ হয়ে আবার স্বাভাবিক জীবনে ফিরে আসবেন।কিন্তু শেষ পর্যন্ত স্যার তার প্রিয় ছাত্রদের শোকের সাগরে ভাসিয়ে মৃত্যুর কাছে হার মেনে আজ চিরবিদায় নিলেন।প্রিয় বিষ্ণু স্যার পৃথিবী থেকে চিরবিদায় নিলেও বেচে থাকবেন তার হাতে গড়া ছাত্রদের মনে স্মৃতির ভালোবাসায় অক্ষয় হয়ে।প্রিয় স্যারের মৃত্যুতে আজ আমরা শোকাহত।স্যারের বিদেহী আত্নার শান্তি কামনা করি।
“মোঃ নাজিম উদ্দিন”

রিপ্লাই করুন

অনুগ্রহ করে আপনার মন্তব্য লিখুন
অনুগ্রহ করে আপনার নাম লিখুন