নীড়পাতা অন্যান্য খবর ফারজানা পরীর ৪টি কবিতা

ফারজানা পরীর ৪টি কবিতা

70
0

সম্ভাবনার ডেস্ক:

কবিতাঃ নদী ও নারী,

 

ও নদী শুনছো?তোমার মত করে,
নাও না আমায় অবিকল…..
জানো তো আমার বুকে আছে অথৈজল…..
তাতে কি আমিও তোমার সাথে…
বয়ে যাবো কলকল।
বোকা মেয়ে সাঁতার জানো?
কোথায় পাবে এত বল….
জানি তো, ডুবে গেলে ভাসিয়ে তুলবে…
অনেক মমতায় ঢেউ এর দল।
এই মেয়ে শুনছো? আমিও দুঃখ বয়ে…
ছুটে যাচ্ছি সাগরের তল,
ভালই হলো দু জনেই দুঃখ লুকাইব,
সাগরের জলে হেসে খলখল।
পাগলি মেয়ে তোমার কথা শুনে আমার,
চোখের কোণে জলে ছলছল…
হা হা হা… নদী তো নারীর মতই,
তুমি ছাড়া আর কে বুঝবে…
আমার চোখের জল।

কবিতাঃ নিশিপদ্ম,
 
নিশিপদ্ম ফুটেছে দূর বনবাসে…
তাই বুঝি চাঁদ জেগে আছে ঘুম পরবাসে,
বিষাদিনী মেঘের মতন কাজল আঁখি ভাসে,
একাকীত্বের বিরহে পোড়ে এ মন তবুও হাসে…
নির্ঘুম জানালায় চেয়ে দেখি রাতের সবুজ ঘাসে,
জোনাকিরা লুকোচুরি খেলছে আপন আলোর সাজে।
শিউলিতলা শিশিরজলে কাঁদছে রাত জাগা পাখি,
কেঁদে ওঠে মন মোর জলে ভরে দুটি আঁখি….
বড় অভিমানে প্রশ্ন করি রাত কে নিশি আর কত বাকি.
কেঁদে বলে শিউলি ফুল সবে তো ফুটলাম…….
ও নিশি এখনি যেওনা দিয়ে ফাঁকি,
আহারে বেচারা থাক না নিশিতে বাসর সাজায়ে…
নিঃশ্বব্দে মনকে বোঝালাম আমিই না হয় চুপ থাকি,

কবিতাঃ সাধনায় ছোঁয়া প্রেম,

 

অনেক সাধনায় ছোঁয়া কি যায় ঐ আকাশের মেঘ,
মেঘের ও কি আছে যাতনা নাকি প্রেম ভরা আবেগ।
প্রেম বোঝে কি ঐ দূর আকাশের তারা…
নাকি তার ও বিরহে মন পুড়ে কেঁদে কেঁদে দিশাহারা।
ভাবছি তাই আনমনে দাঁড়িয়ে একাকী….
প্রেম কি সুখ নাকি মিছেই সব ফাঁকি?
আমার মতই কি ভাবে প্রকৃতি আর ঐ শান্তনদী,
নাকি নির্ভাবনায় বয়ে চলে রাত দিন নিরবধি।
যদি বুজতাম পাখিদের কিচিরমিচির ভাষা…
গহীন অরণ্যে ঘর বাধতাম মিটিত মনের আশা।

 

কবিতাঃ মায়াবতী, _
 
মেয়ে রা মায়াবতী… হলো তাই পুরুষের গতি,
সংসারে মেয়ে রা আলোর জ্যোতি,
পুরুষ কে করেছি তবুও প্রাণের পতি,
মেয়ে রা যদি মায়াডোরে না বাধত ভাই,
দুনিয়ার সব পুরুষ কোথায় পেতো ঠাই,
মেয়ে রা যদি সরিয়ে নিতো মায়ার আঁচল খানি,
সারাজীবন কেঁদেও শেষ হতো না পুরুষের চোখের পানি,
মেয়ে রা না থাকলে হয় না তাই শান্তি সুখের নীড়,
কত মমতায় বাধি এ ঘর কানায় কানায় ভালবাসার ভিড়।

 

রিপ্লাই করুন

অনুগ্রহ করে আপনার মন্তব্য লিখুন
অনুগ্রহ করে আপনার নাম লিখুন