নীড়পাতা সমকালীন সংবাদ বাংলাদেশ বঙ্গবন্ধুর দেখানো পথেই হাঁটছি: তথ্যমন্ত্রী

বঙ্গবন্ধুর দেখানো পথেই হাঁটছি: তথ্যমন্ত্রী

সম্ভাবনা ডেস্ক:

তথ্যমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ড. হাছান মাহমুদ বলেছেন, বঙ্গবন্ধু জাপানের মতো একটি উন্নত রাষ্ট্র রূপান্তরিত করতে চেয়েছিলেন। আমরা তার দেখানো পথেই হাঁটছি।

মঙ্গলবার (২৮ জানুয়ারি) সন্ধ্যায় জাতীয় প্রেসক্লাবে ‘জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ১০ জানুয়ারি স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবসের ভাষণ পর্যালোচনা’ শীর্ষক আলোচনা সভায় তিনি এ কথা বলেন।

তথ্যমন্ত্রী বলেন, ‘স্বাধীনতার পর পুরো দেশ বিধ্বস্ত ছিল। বৈদেশিক আয় শূন্যের কোঠায় ছিল। দুই থেকে তিন কোটি মানুষকে পুনর্বাসন করা খুব সহজ ছিল না। এ মানুষকে পুনর্বাসন করে যখন দেশকে এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছিলেন তখন সাড়ে তিন বছরের মাথায় বঙ্গবন্ধুকে হত্যা করা হয়।’

তিনি বলেন, ‘দেশে ৫০ এর দশকে খাদ্য ঘাটতিতে পরিণত হয়েছিল। তখন চার কোটি সাত লাখ মানুষ ছিল। আর এখন ১৬ কোটি মানুষ। এক ইঞ্চি জমি বাড়েনি। তবু কোনো খাদ্য ঘাটতি নেই। বিদেশেও খাদ্য পাঠানো হয়। এ দেশ এখন পৃথিবীকে অবাক করে দিয়েছে।’

আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক বলেন, ‘আমাদের অর্থনীতির প্রবৃদ্ধি আরও বেশি হতো যদি নেতিবাচক ও সাংঘর্ষিক রাজনীতি না থাকতো। সবকিছুতে না বলার যে সংস্কৃতি বিরোধীদলের বিশেষ করে বিএনপি যদি না থাকতো, তাহলে আমাদের দেশ আরও বহুদূর এগিয়ে যেতে পারতো।’

হাছান মাহমুদ বলেন, ‘পৃথিবীর সব দেশের রাজনৈতিক মতপার্থক্য আছে এবং থাকবে। আমরা একটি গণতান্ত্রিক দেশে বসবাস করি। এখানে ভিন্নমত ও সরকারের সমালোচনা থাকবেই। কিন্তু অন্ধ ও একচোখা সমালোচনা গণতন্ত্রের জন্য ভালো নয়, রাষ্ট্রের জন্যও ভালো নয়।’

তথ্যমন্ত্রী বলেন, ‘আজকে বঙ্গবন্ধুর স্বপ্ন পূরণের দেশ অনেক দূর এগিয়ে গেছে। আমাদের উদ্দেশ্য ২০৪১ সাল নাগাদ রাষ্ট্রকে একটি উন্নত দেশে পরিণত করা। একইসঙ্গে আমাদের লক্ষ্য একটি উন্নত জাতি গঠন করা। শুধু উন্নত রাষ্ট্র গঠন করলে হবে না, আমরা উন্নত রাষ্ট্র গঠন করার পাশাপাশি একটি মানবিক রাষ্ট্র গঠন করতে চাই। আমরা অন্যদের অন্ধ অনুকরণে উন্নত রাষ্ট্র হতে চাই না।’

আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য ও সাবেক শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ বলেন, বাংলাদেশ এখন উন্নয়নের রোল মডেল। খাদ্য, বিদ্যুৎ, আবাসন, শিক্ষা, স্বাস্থ্য, গড় আয়ু সব ক্ষেত্রে সফলতা এসেছে। আমাদের দেশকে কেউ দমিয়ে রাখতে পারবে না।

তিনি বলেন, ‘বাংলাদেশ এখন খাদ্যে স্বয়ংসম্পূর্ণ। আমরা এখন অনেক দেশকে রিলিফ হিসেবে খাদ্য দিতে পারি।’

নুরুল ইসলাম নাহিদ বলেন, ‘বাংলাদেশ এখন নৈতিক মূল্যবোধেও এগিয়ে গেছে। নতুন প্রজন্মকে শিক্ষার পাশাপাশি ভালো মানুষ হিসেবে গড়ে তোলাই এখন আমাদের প্রধান দায়িত্ব।’

আওয়ামী লীগের শিক্ষা ও মানবসম্পদ বিষয়ক উপ-কমিটি আয়োজিত আলোচনা সভায় সভাপতিত্ব করেন দলের প্রেসিডিয়াম সদস্য ও সাবেক শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ। মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন বাংলাদেশ অর্থনীতি সমিতির সভাপতি এবং ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অর্থনীতি বিভাগ ও জাপানিজ স্টাডিজ বিভাগের অধ্যাপক আবুল বারকাত।

সূত্রঃ বাংলানিউজ টোয়েন্টিফোর।

রিপ্লাই করুন

অনুগ্রহ করে আপনার মন্তব্য লিখুন
অনুগ্রহ করে আপনার নাম লিখুন