নীড়পাতা বাংলাদেশ সিলেট বানিয়াচংয়ে ব্যবসায়িদের সাথে মতবিনিময়কালে

বানিয়াচংয়ে ব্যবসায়িদের সাথে মতবিনিময়কালে

21
0
সম্ভাবনা ডেস্ক:
মাছুম বিল্লাহ: অবহেলিত ভাটির জনপদে উন্নয়ন ঘটাতে হলে বানিয়াচং সদরকে ঢেলে সাজাতে হবে স্টাফ রিপোর্টার ॥ ‘বিস্তীর্ণ ভাটির অবেহলিত জনপদগুলোতে যথাযথ উন্নয়ন করতে হলে বানিয়াচং সদরকে ঢেলে সাজাতে হবে। নইলে বানিয়াচং ও আজমিরীগঞ্জের প্রত্যন্ত গ্রামগুলোতে যথাযথ উন্নয়ন বা সরকারি সেবা পৌঁছে দেয়া সম্ভব নয়। তাই সবার আগে বানিয়াচং সদরে ব্যাপক উন্নয়ন ঘটাতে হবে।’ সোমবার (৫ নভেম্বর) রাতে বানিয়াচংয়ের ঐতিহ্যবাহী বড়বাজার ব্যবসায়িবৃন্দের সাথে মতবিনিময়কালে বানিয়াচং-আজমিরীগঞ্জ আসনে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন প্রত্যাশী সাবেক ছাত্রলীগ নেতা মোঃ মাছুম বিল্লাহ চৌধুরী উপরোক্ত বক্তব্য রাখেন। এসময় শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ^বিদ্যালয় ছাত্রলীগ শাখার সাবেক সাধারণ সম্পাদক ও বর্তমানে কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের অর্থ ও পরিকল্পনা উপ-কমিটির সদস্য মোঃ মাছুম বিল্লাহ আশা প্রকাশ বলেন, ‘বানিয়াচং পৃথিবীর সর্ববৃহৎ গ্রাম। এখানে রয়েছে ঐতিহাসিক বিভিন্ন নিদর্শন। সেইসাথে আছে বিস্তীর্ণ হাওর। তাই বানিয়াচংকে ঢেলে সাজিয়ে সম্ভাবনাময় পর্যটন শিল্পের উন্নয়ন ঘটানো হবে। উপজেলা সদরের সাথে ইউনিয়নগুলোর যোগাযোগ ব্যবস্থা ও অন্যান্য অবকাঠামোগত উন্নয়ন করা হবে।’ বানিয়াচং বড়বাজারের বিশিষ্ট ব্যবসায়ি নেতা আবুল মহসিন খান এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত মতবিনিময় সভায় বাজারের ব্যবসায়িবৃন্দ ছাড়াও স্থানীয় আওয়ামীলীগ ও এর অঙ্গসংগঠনের বিভিন্ন পর্যায়ের নেতাকর্মীদের অংশগ্রহণ ছিল লক্ষ্যনীয়। বিশিষ্ট ব্যবসায়ি আনু মিয়ার পরিচালনায় এসময় বক্তব্য রাখেন- সিলেট জেলা আওয়ামীলীগ নেতা ও কানাইঘাট উপজেলা আ’লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক এডভোকেট মামুনুর রশীদ, সিলেট মহানগর যুবলীগের সিনিয়র সদস্য সাজু ইবনে হান্নান খান। এসময় অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন বানিয়াচং উপজেলা যুবলীগ নেতা ও বিশিষ্ট ব্যবসায়ি আব্দুস সামাদ, বিশিষ্ট ব্যবসায়ি ননী পাল, মোঃ মন্নান, মোঃ আজিজুল্লাহ, মোঃ ফারুক মিয়া, মোঃ মুলতান মিয়া প্রমুখ। প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ^বিদ্যালয়ে ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদকের দায়িত্ব পালনকালে ছাত্রদল ও শিবির ক্যাডাররা মোঃ মাছুম বিল্লাহ চৌধুরীকে প্রাণে হত্যার উদ্দেশ্যে বারবার তার ওপর নৃশংস হামলা চালায়। শাবিপ্রবিতে অধ্যয়নের সময়ে ছাত্রদল ও শিবির ক্যাডাররা আমাকে দুইবার প্রাণে হত্যার উদ্দেশ্যে নৃশংসভাবে হামলা চালায়। ২০০০ সালে জামায়াত-বিএনপি বঙ্গবন্ধু হলের নাম পরিবর্তন করতে চাইলে মাছুম বিল্লাহ’র নেতৃত্বে তা রুখে দেয়া হয়।

 

রিপ্লাই করুন

অনুগ্রহ করে আপনার মন্তব্য লিখুন
অনুগ্রহ করে আপনার নাম লিখুন