নীড়পাতা প্রবাসের সেতুবন্ধন যুক্তরাজ্য জাতীয় পার্টির ইফতার মাহফিল অনুষ্টিত

যুক্তরাজ্য জাতীয় পার্টির ইফতার মাহফিল অনুষ্টিত

20
0

সম্ভাবনা ডেস্ক:

যুক্তরাজ্য জাতীয় পার্টির উদ্যোগে ইফতার পার্টি ও দোয়া মাহফিল অত্যন্ত ঝাঁকজমকপূর্ন ভাবে ও বেশ উৎসাহ উদ্দীপনার সহিত কমিউনিটির নেতৃবৃন্ধসহ সর্বস্থরের নেতা-কর্মীদের অংশগ্রহনের মাধ্যমে উদযাপিত হয়েছে। গত ২৭শে মে, সোমবার পূর্ব লন্ডনের একটি হলে এই অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।
ইফতার পূর্ব আলোচনা সভায় সভাপতিত্ব করেন যুক্তরাজ্য জাতীয় পার্টির আহ্বায়ক কাউন্সিলার সামছুল ইসলাম সেলিম এবং যৌতভাবে সভা পরিচালনা করেন সদস্য সচিব সাহেদ আহমদ, লন্ডন মহানগরের সিক্রেটারী শাহ্ সাহিদুর রহমান ও লন্ডন সিটির সদস্য সচিব সায়েফ রহমান।
মৌলানা রফিক আহমদের পবিত্র কোরআন তেলাওয়াতের মাধ্যমে শুরু হওয়া আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন লন্ডন বারা অব টাওয়ার হামলেটের মাননীয় স্পিকার কাউন্সিলার ভিক্টোরিয়া এন ওবাজি। তাঁকে ফুলের তোড়া উপহার দিয়ে বরন করেন জাতীয় পার্টির পক্ষ থেকে ইফতার পার্টির আহ্বায়ক কাউন্সিলার সামছুল ইসলাম সেলিম এবং বিশেষ অতিথি জাপা ইউরোপিয়ান কোঅর্ডিন্টার মুহাম্মদ মুজিবুর রহমান, জাপা কেন্দ্রীয় কমিটির সম্মানীত সদস্য এডভোকেট এবাদ হোসেন, লন্ডন বারা অব বারকিং এন্ড ডেগেনহাম ডিপুটি স্পিকার কাউন্সিলার ফারুক চৌধুরী এবং কাউন্সিলার সদরূজজামান খান।
প্রধান অতিথির বক্তব্যে কাউন্সিলার ভিক্টোরিয়া উপস্থিত নেতৃবন্দের ভূয়সী প্রশংসা করেন তাঁকে আমন্ত্রণ জানানোর জন্য। তিনি দূর-দুরান্ত থেকে উপস্থিত নেতা-কর্মী এবং সকলকে সাধুবাদ জানান এবং পল্লীবন্ধু এইচ এম এরশাদ সাহেবের সুস্বাস্থ্য কামনা করেন।
বিশেষ অতিথির বক্তব্যে মুজিবুর রহমান ইতিহাসের আলোকে বলেন পল্লীবন্ধুর বলিষ্ট নেতৃত্বে আমরা বাংলাদেশের উন্নয়ন পেয়েছি এবং বাংলাদেশের ললাপে লেগে থাকা তলাবিহীন ঝুড়ির তকমা চিরতরে উচ্ছেদ করা সম্ভব হয়েছিল। ইতিহাস স্বাক্ষী পল্লীবন্ধুর নয় বছরের বলিষ্ট নেতৃত্বে এবং যুগান্তকারী বিকেন্দ্রীকরণের পদক্ষেপের জন্য দেশের উত্তরোত্তর সমৃদ্ধি সাধিত হয় যার পরিপেক্ষিতে দেশ আজ মধ্য আয়ে উন্নীত হয়ে বিশ্বে প্রশংসা লাভ করেছে। তিনি দু:খ করে বলেন জাতীয় পার্টি ক্ষমতায় থাকলে এতদিনে বাংলাদেশ সমূহ উন্নতি লাভ করে বিশ্বে ইতিহাস সৃষ্টি করত। তিনি আরোও বলেন আগামীতে জাতীয় পার্টি ক্ষমতায় গেলে দেশে ৮টি প্রদেশ বাস্থবায়ন করা হবে।
বিশেষ অতিথির বক্তব্যে ডিপুটি কাউন্সিলার ফারূক চৌধুরী ও কাউন্সিলার সদরূজজামান খান এরশাদ সাহেবের রাজনৈতিক দূরদর্শিতার ভূয়সী প্রশংসা করে তাঁর সুস্বাস্থ্য ও দীর্ঘায়ূ কামনা করেন। এডভোকেট এবাদ হোসেন সাহেব বলেন এরশাদ সাহেবের স্লোগান ৬৮হাজার গ্রাম বাচলে দেশ বাচবে আর সে লক্ষ্য বাস্তবায়নের জন্য সুদুরপ্রসারী বিভিন্ন পদক্ষেপ ও তার অনেকটা বাস্তবায়ন করেছিলেন বলে আজ দেশ সমৃদ্ধির দ্বার প্রান্তে। আমরা তার পূর্নাঙ্গ বাস্তবায়নের লক্ষ্যে কাজ করে যাচ্ছি। বক্তারা জোর দিয়ে বলেন এদেশে বেড়ে উঠা নতুন প্রজন্মকে আমাদের ভাষা, সংস্কৃতি ও দীর্ঘ সমৃদ্ধ সংগ্রামের ইতিহাস জানাতে হবে এবং তাদের সম্পৃক্ত করতে হবে।
জনাব জি এম কাদের সাহেবকে ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান করায় দলের প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান সাহেবের প্রতি বক্তারা আন্তরিক কৃতজ্ঞতা জ্ঞাপন করেন।
এ সময় অন্যানের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, যুগ্ম আহ্বায়ক আব্দুল হাই, যুগ্ম সদস্য সচিব মাশুক আহমদ, যুগ্ম সদস্য সচিব সাহাব উদ্দিন, জয়নাল উদ্দিন, শামসুল হক, লুটন শাখার সভাপতি এস আই খান, লুটন শাখার সিক্রেটারী কামাল আহমদ চৌধুরী, লন্ডন মহানগরের সভাপতি আজম আলী , সহসভাপতি জবরুল ইসলাম লনি, সিক্রেটারী শাহ্ সাহিদুর রহমান, লন্ডন সিটির সিক্রেটারী সায়েফ রাহমান, লন্ডন মহানগরের ট্রেজারার মজির উদ্দিন, লন্ডন মহানগরের সাংগঠনিক সম্পাদক আং সালাম , সালেহ আহমদ চৌধুরী আলফু, ফারুক মিয়া, খয়রুল ইসলাম আলিম, আবু আহমদ সারোয়ার, দুদু মিয়া, বিশিষ্ট সাংবাদিক সৈয়দ জহুরূল হক ডি পি এস আই, লুকমান আলী, ফারুক আহমদ, আং কাদির, নুরুজজামান, শামিম আহমদ, বিশিষ্ট কমিউনিটি নেতা লাকি মিয়া, আনোয়ার হোসেন খাঁন পংকি, ফারুক উদ্দিন, কামরুল ইসলাম মোল্লা, হারুন মিয়া, জনাব রফিক উদ্দিন প্রমূখ।
পরিশেষে পল্লীবন্ধু আলহাজ এইচ এম এরশাদ সাহেবের শারিরীক সুস্থতা কামনা করা সহ ইফতারভোজ শেষে অনুষ্ঠানের সভাপতি কাউন্সিলর সামছুল ইসলাম সেলিম সমাপনি বক্তব্যে উপস্থিত সকলের প্রতি অভিনন্দন ও অংশগ্রহণ করার জন্য কৃতজ্ঞতা জ্ঞ্যাপনের মাধ্যমে সভার কাজ সমাপ্ত করেন।

রিপ্লাই করুন

অনুগ্রহ করে আপনার মন্তব্য লিখুন
অনুগ্রহ করে আপনার নাম লিখুন